সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেইসবুকে ঝড় তুলেছে শুদ্ধ ভাষা চর্চার প্ল্যাটফর্ম ‘বানান আন্দোলন’

0
147
সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেইসবুকে ঝড় তুলেছে শুদ্ধ ভাষা চর্চার প্ল্যাটফর্ম ‘বানান আন্দোলন’

গতকাল, বুধবার (১৩ মে) সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় ‘আ মরি বাংলা ভাষা’ শিরোনামে একটি প্রতিযোগিতার ঘোষণা দেয় শুদ্ধ ভাষা চর্চার প্ল্যাটফর্ম ফেইসবুক গ্রুপ ‘বানান আন্দোলন’। প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য রেজিস্ট্রেশনের সুযোগ দেয়া হয় আজ (১৪ মে) সকাল ১০টা পর্যন্ত। এ ঘোষণার পর মাত্র ১৫ ঘণ্টায় দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ১ হাজার ৫১৭ জন মানুষ এখানে রেজিস্ট্রেশন করেন।সারা রাত-ব্যাপী চলে এই রেজিস্ট্রেশনের কাজ।

প্রতিযোগিতার বিষয়ে ‘বানান আন্দোলন’ এর তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের প্রধান রেজবুল ইসলাম বলেন, পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন থেকে শুরু করে ফলাফল পর্যন্ত সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হয়েছে ডিজিটাল উপায়ে। যে-সকল ইমেইল আইডি থেকে রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছিল, পূর্বনির্ধারিত সময় মোতাবেক দুপুর ১২টার পরপরই প্রত্যেকটি ইমেইলে প্রশ্নপত্রের ডিজিটাল ভার্শনটি পাঠিয়ে দেয়া হয়। ধারাবাহিকভাবে সঠিক উত্তরগুলোতে ক্লিক করে অংশগ্রহণকারীরা অনলাইনেই পরীক্ষা দিয়েছেন এবং পরীক্ষা শেষে একটি অপশনে ক্লিক করে সাথে সাথেই নিজের প্রাপ্ত নম্বর এবং প্রতিটি প্রশ্নের সঠিক উত্তর পেয়ে গেছেন।

জানা যায়, ৫০ নম্বরের এ পরীক্ষাটির জন্য সময় ধার্য করা হয়েছে ৩০ মিনিট। যথাসময়ে পরীক্ষার উত্তরপত্র-প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থা তৈরি করা হয় যার মাধ্যমে অংশগ্রহণকারী পরীক্ষা শেষ করামাত্রই তার প্রাপ্ত নম্বর গ্রুপের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের ডাটাবেইজে চলে আসে। এর আগে, গত কিছুদিনে ‘বানান আন্দোলন’ নামের এই ফেইসবুক গ্রুপটি ব্যাপকভাবে পরিচিত হয়ে ওঠে। স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এবং চাকরিপ্রত্যাশীদের পাশাপাশি নানান শ্রেণিপেশার নানা বয়সের মানুষের সম্মিলনে জমজমাট হয়ে ওঠা এই গ্রুপটি মূলত ভাষাশুদ্ধতা নিশ্চিতের লক্ষ্যে এক ধরনের আন্দোলন। এর উদ্যোক্তা লেখক ও কথাসাহিত্যিক ওয়াহেদ সবুজ।

‘বানান আন্দোলন’ এর কার্যক্রম বিষয়ে বলতে গিয়ে ওয়াহেদ সবুজ জানান, বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের শিক্ষক হিসেবে ভাষার অশুদ্ধ প্রয়োগ আমাকে সবসময়ই ভীষণ কষ্ট দেয়। সে পরিপ্রেক্ষিতেই ২০১৫ সালে ফেইসবুকে ‘বানান আন্দোলন’ নামে এ গ্রুপটি তৈরি করি। এর মাধ্যমে এ মুহূর্তে পৃথিবীর ৩৫টি দেশের বাংলা ভাষাভাষী মানুষ সেবা পাচ্ছেন, বাংলা ভাষার শুদ্ধ ব্যবহার সম্পর্কে জানতে ও শিখতে পারছেন।

‘বানান আন্দোলন’ এর ভবিষ্যত পরিকল্পনা বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি আরো বলেন, সবার আগে দরকার ভাষার শুদ্ধ চর্চার গুরুত্ব বিষয়ে মানুষকে সচেতন করা। সামনের দিনগুলোতে যাতে এ কার্যক্রমের মাধ্যমে সারা পৃথিবীর বাংলা ভাষাভাষী সকল মানুষ উপকৃত হতে পারেন, সেটি মাথায় রেখে অতিসত্বর বৃহত্তর একটি পরিকল্পনা বাস্তবায়নের প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। ‘আ মরি বাংলা ভাষা’ প্রতিযোগিতার ফলাফল প্রকাশ করা হবে গত কাল শুক্রবার (১৫ মে) সন্ধ্যায়। পরীক্ষায় সর্বোচ্চ নম্বরপ্রাপ্ত তিনজনকে বিশেষ পুরস্কারে ভূষিত করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here