কলাপাড়ায় জমি সংক্রান্ত জের নিয়ে সংবাদ সম্মেলন।

0
16
কলাপাড়ায় জমি সংক্রান্ত জের নিয়ে সংবাদ সম্মেলন।

মো মাসুম বিল্লাহ ,পটুয়াখালী প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। শনিবার (২০ মার্চ) সকাল ১১ টায় কলাপাড়া রিপোর্টার্স ক্লাবের হল রুমে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ভুক্তোভোগী মো. ইলিয়াছ হোসেন রনি। বি.এস রেকর্ড মূলে প্রাপ্ত সম্পত্তির বুঝ না পেয়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরছে উপজেলার লালুয়া ইউনিয়নের মঞ্জুপাড়া গ্রামের হাজী মো. আবদুস সোবাহানের পুত্র ইলিয়াস হোসেন রনি।

লিখিত বক্তব্যে তিনি জানান, কলাপাড়া উপজেলার লালুয়া ইউনিয়নের বানাতী পাড়া মৌজায় সাব কবলা দলিল মূলে মোট ১.০৫ একর ভূমি খরিদ করে দিয়ারা জরিপে রেকর্ডভূক্ত হয়ে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছিল। বর্তমান সরকারের হাল জরিপের বি.এস রেকর্ডের খতিয়ান নং-৬৭৫ যাহার দাগ নং ৩২০৩ ও ৩২০৪ এ জমি রয়েছে ০.৫৬৯২ একর, বি. এস ৬৭৬ খতিয়ানের দাগ নং ২৭১৭ ও ২৭১৮ এ জমি রয়েছে ০.১৬২০ একর। বি. এস ৩৫৫ নং খতিয়ানের দাগ নং ৫১৩৭ এ জমির পরিমাণ ০.৪৩০০ একর ভূমি রেকর্ডভূক্ত হয়ে ভোগদখল করে আসছে। অথচ ১ একর ৫ শতাংশ জমির রেকর্ডভূক্ত হলেও এর মধ্যে ৫২ শতাংশ জমির বুঝ পেলেও বাকী ৫৩ শতাংশ জমির কোন বুঝ পাচ্ছেনা ভূক্তোভোগী ইলিয়াস হোসেন রনি।

লিখিত বক্তব্যে তিনি আরোও জানান, বি. এস ৬৭৫ নং খতিয়ানের ৩২০৩ ও ৩২০৪ নং দাগের উপর অবস্থিত তার বসতবাড়ী ও গাছপালা বিবাদীপক্ষ ভেঙ্গে ফেলে ও বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি ও হুমকী দিয়ে থাকে। গত ১০ মার্চ বুধবার বেলা ১২ টা ১৫ মিনিটের দিকে স্থানীয় বাসিন্দা সালাহ উদ্দিন মিয়ার ছেলে আমিনুল ইসলাম রাকিব (৩০) ও মো. রাইসুল ইসলাম (২৩), মৃত. নুরমোহাম্মাদ হাওলাদারের ছেলে মো. নকিব উদ্দিন ও মো. ফারুকুল ইসলামের ছেলে মো. সজিব সহ ৩০/৩২ জনের একটি সন্ত্রাসীবাহিনী দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে অস্ত্রের মহড়া দিয়ে তাদের বাড়ী-ঘড় ও গাছপালা ভেঙ্গে দেয়। অস্ত্রের মুখে ভয় দেখিয়ে ভূক্তোভোগী ইলিয়াছ হোসেন রনির নিকট হতে নগদ ৩৩ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে আরোও ৫ (পাঁচ লক্ষ) টাকা চাঁদা দাবী করে। একই সাথে উল্লেখিত জমি ছেড়ে দেয়ার জন্য ভয়-ভীতি দেয় বলে লিখিত বক্তব্যে উল্লেখ করেন অভিযোগকারী ইলিয়াস হোসেন রনি। পরে ৯৯৯ এ মোবাইল করলে এস. আই জসিম উদ্দিন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে তাদের উদ্বার করেন বলে জানা যায়। এবিষয়ে কলাপাড়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। যাহার নং ২৮১/২০২১।

এবিষয়ে অভিযুক্ত নকিব উদ্দিনের সাথে কথা হলে তিনি জানান, ঐ জমিতে আমার কোন অধিকার নেই। আমি এবিষয়ে কিছু জানিনা। বি.এস রেকর্ডে তার নামে ভুল রেকর্ড হয়েছে বলে তিনি স্বীকার করেন।
অভিযুক্ত আমিনুল ইসলাম রাকিব ও রাইসুল ইসলামের মা মোসা: আঞ্জুমান আরা বলেন, জমি-জমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে অভিযোগকারী ইলিয়াসের বাবা ও তাদের পরিবারের সাথে স্থানীয়ভাবে মিমাংসা চলছিল। তবে, কে বা কারা ইলিয়াছ হোসেনের ঘড়-বাড়ি ভেঙ্গেছে সে বিষয়ে কিছু জানেন না বলে তিনি জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here