প্রেমের বিয়ে, অতঃপর মৃত্যু

0
2
প্রেমের বিয়ে, অতঃপর মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিনিধি: পাবনার সুজানগর উপজেলার জাকিয়া সুলতানা (১৮) নামে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার (২ ডিসেম্বর) সুজানগর পৌরসভার মসজিদপাড়া এলাকায় স্বামীর বাড়ি থেকে ওই গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনার পর থেকে জাকিয়ার স্বামী মিম হোসেন (২৮) পলাতক রয়েছে। জাকিয়ার পরিবার-পরিজনের দাবি, তাকে হত্যার পর তার স্বামী মরদেহ ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে রেখেছে। এদিকে জাকিয়ার স্বামীর পরিবারের দাবি সে আত্মহত্যা করেছে।

সুজানগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বদরুদ্দোজা জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা সদর হালপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট পাওয়ার পর জানা যাবে কীভাবে জাকিয়ার মৃত্যু হয়েছে। সে অনুযাযী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পুলিশ জানায়, জাকিয়া সুলতানা পাবনা সদর উপজেলার সাদুল্লাপুর ইউনিয়নের পাটোয়া গ্রামের হাসান আলীর মেয়ে ও স্থানীয় দুবলিয়া ফজিল্লাতুনেছা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী ছিলেন। আর মিম হোসেন সুজানগর পৌরসভার মসজিদপাড়া এলাকার মো. মন্তাজ আলীর ছেলে এবং বেকার ছিলেন।

জাকিয়ার মা রাশিদা খাতুন জানান, দীর্ঘদিন প্রেম করার পর সাত মাস আগে বিয়ে করে জাকিয়া ও মিম। বিয়ের পর জাকিয়া জানতে পারে তার স্বামী মিম মাদকসেবী। এ নিয়ে প্রায়ই দুজনের মধ্যে ঝগড়া হতো। জাকিয়াকে মারধরও করত মিম। এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার রাতের কোনো একসময় জাকিয়াকে শ্বাসরোধে হত্যার পর তার মরদেহ ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে রেখে পালিয়ে যায় মিম। এদিকে স্থানীয়রা জানান, এর আগেও মিম প্রেম করে সুজানগরের এক মেয়েকে বিয়ে করেন। কিন্তু সে নেশাগ্রস্ত জানতে পেরে কয়েক মাস পরই মেয়েটি মিমকে ডিভোর্স দেয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here