মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে নবাবগঞ্জে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কার্যক্রম পরিদর্শন করলেন জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম

0
2
মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে নবাবগঞ্জে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কার্যক্রম পরিদর্শন করলেন জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম

দিনাজপুর প্রতিনিধি: মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারী) দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে ভূমিহীনও গৃহহীনদের সরকারি ভাবে বিতরণযোগ্য নির্মানাধীন ঘর আনুষ্ঠানিকভাবে পরিদর্শন করলেন দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মোঃ মাহমুদুল আলম। নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছাঃ নাজমুন নাহার জানান, সকাল থেকেই তিনি সরকারি বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ পরিদর্শন ও কিছু প্রকল্পের উদ্ভোধন করেছেন।

এসময় দিনাজপুর ৬ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ শিবলী সাদিক, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আতাউর রহমান, উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) আল মামুন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ রেফাউল আজম, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ তোফাজ্জল হোসেন প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন। মুজিববর্ষ উপলক্ষে ‘আশ্রয়ণের অধিকার, শেখ হাসিনার উপহার’ প্রতিপাদ্যে দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলায় ২২৬টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের জন্য নির্মিত হচ্ছে নীল টিনের ‘স্বপ্নের র্ঠিকানা’। উপজেলার বিভিন্ন স্থানের খাসজমিতে মাথা গোঁজার ঠাঁই হচ্ছে এসব পরিবারের।

প্রতিটি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার পাচ্ছে দুই কক্ষের আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সংবলিত নীল টিনের ঘর । এ লক্ষ্যে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে উপজেলা জুড়ে খাসজমি চিহ্নিত ও দখলমুক্ত করে চলছে গৃহ নির্মাণের কাজ। এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছাঃ নাজমুন নাহার জানান পাশা পাশি কয়েক পর্বে যাচাই-বাছাই করে তৈরি করা হচ্ছে ‘ক’ তালিকাভুক্ত প্রকৃত ভূমি ও গৃহহীনদের তালিকা। প্রাথমিকভাবে আগামী জানুয়ারির মধ্যে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কার্যালয়ের তদারকিতে ২০০টি পরিবারকে উপহার দেওয়া হবে নতুন ঘরের চাবি। জানা যায়, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের জন্য দুই কক্ষের সেমিপাকা ঘর নির্মাণের কাজ চলছে। উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের খাসজমিতে ওইসব ঘর নির্মাণ কাজ করা হচ্ছে।প্রতিটি ঘর একটি করে পরিবারকে দেওয়া হবে।শুধু ঘর নয়, জমিও দেওয়া হচ্ছে।এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে নবাবগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার ( ভূমি) আল মামুন জানান ভূমিহীন ও গৃহহীনদের নামীয় বন্দোবস্ত দলিল দেওয়া হবে।সে কাজও অনেকটা এগিয়ে চলেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here