সুপার ওভারে শুভ সূচনা দিল্লির

0
14
সুপার ওভারে শুভ সূচনা দিল্লির

টি-টোয়েন্টি খেলা। যার পরতে পরতে থাকে টান টান উত্তেজনা। তেমনই এক শ্বাসরূদ্ধকর ম্যাচ দেখা গেল আইপিএলে। আসরের দ্বিতীয় ম্যাচে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব এবং দিল্লি ক্যাপিটেলসের প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচ উপভোগ করেছে ক্রিকেট বিশ্ব। 

পুরো ম্যাচ দুলেছে পেন্ডুলামের মতো। কখনো দিল্লির দিকে আবার কখনো পাঞ্জাবের দিকে। তবে নির্ধারিত ২০ ওভারে জয় পায়নি কেউই। ম্যাচ গড়িয়েছে সুপার ওভারে। সেখানে পরাস্ত প্রীতি জিনতার দল পাঞ্জাব। তাদের হারিয়ে আইপিএলে শুভ সূচনা করেছে দিল্লি ক্যাপিটেলস। 

রাবাদার করা সুপার ওভারের প্রথম বলেই দুই রান নেন লোকেশ রাহুল। পরের দুই বলে রাহুল এবং নিকোলাস পুরান ফিরলে দিল্লির সামনে ৬ বলে ৩ রানের লক্ষ্য দাঁড়ায়। এরপর মোহাম্মদ শামির এক ওয়াইড আর রিশাভ পান্থের ২ রানে জয় নিশ্চিত করে দিল্লি।এর আগে মাঝারি লক্ষ্যে খেলতে নেমে ভালোই শুরু করেছিলেন পাঞ্জাবের লোকেশ রাহুল এবং মায়াঙ্ক আগারওয়াল। এই দু’জনে যোগ করেন ৩০ রান। রাহুল ১৯ বলে ২১ রান করে মোহিত শর্মার বলে বোল্ড হন। 

এরপর একই ওভারে করুন নায়ার এবং নিকোলাস পুরানকে ফেরান অশ্বিন। ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারে কাগিসো রাবাদার বলে গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ফিরে গেলে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে দিল্লি। বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি সরফরাজ খানও। ১২ বলে ১২ রান করে ফিরে যান অক্ষর প্যাটেলের বলে। ষষ্ঠ উইকেটে কৃষ্ণাপ্পা গৌতমকে সঙ্গে নিয়ে ৪৬ রানের জুটি গড়ে একপ্রান্ত আগলে রাখেন মায়াঙ্ক। এরপর ক্রিস জর্ডানকে সঙ্গে নিয়ে পাঞ্জাবকে জয়ের অনেক কাছে নিয়ে যান মায়াঙ্ক। ৭টি চার আর ৪ ছক্কায় তার ব্যাট থেকে আসে ৬০ বলে ৮৯ রান। জর্ডান ইনিংসের শেষ বলে ৫ রান করে ফিরলে সুপার ওভারে গড়ায় ম্যাচটি।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই বিপর্যয়ে পড়ে দিল্লি। মাত্র ১৩ রানে তিন উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকে তারা। পাঞ্জাবের পেসার মোহাম্মদ শামির আগুনে বোলিংয়ের সামনে অসহায় হয়ে পড়ে দিল্লির ব্যাটসম্যানরা।ওপেনার শিখর ধাওয়ান শূন্য রানেই ফিরে যান। এরপর পৃথ্বি শ থিতু হতে পারেননি। ৫ রানে আউট হন তিনি। ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান শিমরন হেটমায়ারও ব্যর্থ হয়েছেন। দ্রুত তিন উইকেট হারিয়ে অধিনায়ক শ্রেয়াশ আইয়ার এবং রিশাভ পান্থের ব্যাটে ঘুরে দাঁড়ায় দিল্লি।

এই দু’জনে ৭৩ রানের জুটি গড়ে দিল্লিকে সম্মানজনক পুঁজি এনে দেয়ার চেষ্টা করেন। ৩২ বল খেলে আইয়ার করেন ৩৯ রান। ২৯ বল খেলে ৩১ রান করেন রিশাভ পান্থ।শেষদিকে মার্কাস স্টায়নিসের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ১৫৭ রানের পুঁজি পায় দিল্লি। মাত্র ২১ বলে ৫৩ রান রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে রান আউট হন স্টায়নিস। পাঞ্জাবের হয়ে ৩ উইকেট নেন মোহাম্মদ শামি। এছাড়া কটরেল নেন ২ উইকেট। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here